মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১২:৫৩ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
খানসামায় বাড়ি বাড়ি জ্বরের রোগী, সেবা দিতে হিমশিমে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা  খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় সারিয়াকান্দি পৌর বিএনপির দোয়া মাহফিল নীলফামারীর ডিমলায় পাটচাষি প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত। রান্ধুবীবাড়িতে হিন্দু ব্যক্তিকে ভয়ভীতি ও ধমক উচ্ছেদের নোটিশ পেয়েই স্ট্রোকে নিহত স্বাধীন গণমাধ্যমে হুমকি ও কণ্ঠ রোধের অপচেষ্টা,প্রতিবাদে রাজশাহীতে মানববন্ধন বঙ্গবন্ধু সেতুতে ২৪ ঘণ্টায় ৩ কোটি টাকার টোল আদায় মারা গেছেন সেই ‘জল্লাদ’ শাহজাহান তিস্তা নিয়ে শেখ হাসিনাকে মোদির আশ্বাস! উষ্মা জানিয়ে দিল্লিকে চিঠি পশ্চিমবঙ্গের খানসামা উপজেলায় ল্যাট্রিন পেয়ে খুশি ১৬ দরিদ্র পরিবার ‘ন্যায়কুঞ্জ’ স্থাপনে বিচারপ্রার্থী মানুষের কষ্ট লাঘব হবে : প্রধান বিচারপতি

চুরির ঘটনা নিয়ে মাদ্রাসার সভাপতি ও অধ্যক্ষের সামনে মারামারি

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি : / ৪১ বার দেখা হয়েছে
আপডেট করা হয়েছে

মাদ্রাসায় বার বার চুরির ঘটনা নিয়ে গর্ভনিং বডি, অভিভাবক ও শিক্ষকদের মিটিংয়ে দুই কর্মচারির মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ ও মারামারির ঘটনা ঘটেছে। সোমবার দুপুরে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার প্রাচীনতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চন্দ্রগাঁতী দ্বি-মুখী আলিম সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষের নিজ কামড়ায় এ ঘটনা ঘটে। রবিবার দিবাগত রাতে মাদ্রাসার লাইব্ররী সহ ৩ টি কক্ষের তালা ভেঙ্গে আলমারি থেকে বেশকিছু টাকা চুরি করে গুরুত্বপূর্ণ ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, কম্পিউটার সহ বিভিন্ন আসবাবপত্র এলোমেলো রেখে চোর পালিয়ে যায়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নৈশ প্রহরী মোঃ লিটন আলী ও নিরাপত্তা কর্মী রাকিব হোসেনের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ বাঁধে। এ সময় নৈশ প্রহরী লিটন ও তার পিতা আব্দুল মান্নান মাদ্রাসার নিরাপত্তাকর্মী রাকিব ও তার পিতা হারুন অর রশিদের উপর হামলা চালিয়ে বেদম মারপিট করে জখম করে। স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, দুর্নীতিবাজ সভাপতি আলহাজ্ব রফিকুল ইসলামের অনিয়মের কারণে এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, একটি গোষ্ঠীর লোকজন বার বার মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটিতে থাকায় মাদ্রাসায় বিভিন্ন ধরনের অনিয়ম সংঘটিত হয়ে আসছে। বর্তমান সভাপতি রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে প্রতিষ্ঠানের গাছ বিক্রি, পুকুরের মাটি বিক্রি, ফান্ডের টাকা আত্মসাৎ সহ নানা অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে বলে জানান তারা। তারা আরো বলেন, নতুন কমিটি গঠনের ব্যাপারে স্থানীয় সংসদের জাল সিল তৈরি করে রফিকুলের সুপারিশ পত্রে প্রয়োগ করেছে বলেও অভিযোগ তাদের।

মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মোঃ নাসির উদ্দীন জানান, এই প্রতিষ্ঠানে ২/৩ মাসের মধ্যে তিনবার চুরির ঘটনা ঘটেছে। রবিবার রাতে ৩ টি কক্ষের তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে বেশকয়েকটি আলমারি ভেঙে এলোমেলো করে কাগজপত্র রেখে চোর পালিয়ে যায়। এব্যাপারে অধ্যক্ষ এখনো কোন আইনী ব্যবস্থা নেননি বলে জানান তিনি।

মাদ্রাসার নিরাপত্তা কর্মী রাকিব জানায়, মাদ্রাসার নৈশ প্রহরী ডিউটি করে না বলে এমন ঘটনা ঘটছে।

নৈশপ্রহরী লিটন অভিযোগ করে বলেন, নিরাপত্তাকর্মী রাকিব গাঁজা ও হিরোইন খোর, সেই এ ধরনের কাজ করতে পারে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা একেএম সামছুল হক জানান, চুরির ঘটনা মাদ্রাসা কতৃপক্ষ এখনো আমাকে জানায়নি। মারিমারি ঘটেছে তাও জানি না। খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিব।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
Theme Created By Limon Kabir