রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
আম নিয়ে কষ্টগাঁথা কাজিপুরে বসুন্ধরা শুভসংঘের উদ্যোগে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান বন্ধ থাকা সেফটিক ট্যাঙ্কে নেমে প্রাণ হারালো কুষ্টিয়ার দুই যুবক সামাজিক অপরাধ প্রতিরোধে মসজিদে ওসি’র জনসচেতনতা মূলক বক্তব্য কামারখন্দে কোনাবাড়ীতে উৎসবমুখর পরিবেশে কবরস্থানে বাউন্ডারি ওয়াল নির্মাণ কাজ উদ্বোধন সিরাজগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির চরম অবনতি উল্লাপাড়ায় ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে গাছের চারা বিতারন বিতর্কিত সেই পিআইও মাহাবুব বদলি হয়ে উল্লাপাড়া আসার পাঁয়তারা কোটা আন্দোলন:আজ থেকে সড়ক বন্ধ করে বিশৃঙ্খলা করলে কঠোর ব্যবস্থা:মহিদ কেরালায় হারানো আইফোন কামরাঙ্গীরচর থেকে উদ্ধার, দুই ভাই গ্রেফতার

প্রয়াত নেতা মোহাম্মদ নাসিমের মৃত্যু বার্ষিকী মানেই কাজিপুর বাসির শোকের দিন 

মোঃ শফিকুল ইসলাম, কাজিপুর (সিরাজগঞ্জ) / ১১৩ বার দেখা হয়েছে
আপডেট করা হয়েছে

lবাংলাদেশ  আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র ও বিভিন্ন দপ্তরের সাবেক মন্ত্রী প্রয়াত জননেতা আলহাজ্ব  মোহাম্মদ নাসিমের  ১৩ই জুন ৪র্থ মৃত্যু বার্ষিকী। মোহাম্মদ নাসিম আওয়ামী লীগের রাজনীতির এক কিংবদন্তী। রাজনীতিতে তার চরিত্র ছিলো সাহসিকতায় ভরপুর। তিনি ছিলেন সত্যিকারের জননেতা।
সিরাজগঞ্জ তথা কাজিপুরের তিনি ছিলেন আশার আলোর বর্তিকা। তিনি ছিলেন উত্তর বঙ্গের রাজনীতির সিংহ পুরুষ।  সিরাজগঞ্জবাসিকে যমুনা নদীর ভাংগনের হাত থেকে রক্ষা করে সিরাজগঞ্জ তথা কাজিপুর কে করেছেন সমৃদ্ধ। বঙ্গবন্ধুর আর্দশের সৈনিক হিসেবে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত মানুষের কল্যাণে নিবেদিত ছিলেন তিনি ।কাজিপুর কে উন্নয়নের আলোয় আলোকিত করছেন তিনি।
কাজিপুরের প্রতিটি মানুষের জীবনে এনেছেন আমুল পরিবর্তন, নদী ভাংগন রোধ থেকে শুরু করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,বেকারত্ব লাগবে কর্মসংস্থানসৃষ্টি, নানা ক্ষেত্রে করেছেন অপরিসীম উন্নয়ন, যাহা কাজিপুরবাসি কোন দিন তার ঋণ শোধ করতে পারবে না।
তাই তিনি মরে গিয়েও কাজিপুরবাসির নিকট স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। তার এ মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে  নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালন করবে কাজিপুরবাসি তথা কাজিপুর আঃলীগ ও তার সহযোগী সংগঠন। নানা কর্মসূচির মধ্য রয়েছে সকালে ঢাকার  বনানী কবরস্থানে মোহাম্মদ নাসিমের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো । পরিবারের সদস্যরা মোহাম্মদ নাসিমের কবর জিয়ারত, কাজিপুরে রয়েছে তার স্মরণে আলোচনা সভা , দশজন ব্যক্তিকে মোহাম্মদ নাসিম স্মৃতি সন্মানা প্রদান, মিলাদ মাহফিল,তার আত্মার মাগফেরাত কামনায়  দোয়া, সবশেষে এতিমখানার   মানুষের খাবার   ব্যবস্থা।উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে বাংলাদেশ আঃলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল এম পি,  সিরাজগঞ্জ জেলা আঃলীগের নেতাকর্মী বৃন্দ। মুল আলোচক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রয়াত জননেতা মরহুম আলহাজ্ব মোহাম্মদ নাসিম এর সুযোগ পুত্র সিরাজগঞ্জ -১ কাজিপুর সাংসদ প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়।
এছাড়াও কাজিপুর উপজেলার আঃলীগ ও তার সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীসহ আপামর জনসাধারণের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। কাজিপুর উপজেলা আঃলীগের সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান সিরাজী জানান, কাজিপুর তথা কাজিপুরের স্বপ্নদ্রষ্টা প্রয়াত জননেতা আলহাজ্ব মোহাম্মদ নাসিম আমাদের মাঝে নেই, এটা কাজিপুরবাসির জন্য অপুরুনীয় ক্ষতি, যেটা কোন দিন পাবার নয়,আমরা নেতাকে গভীর শ্রদ্ধায়স্মরণ করি, মরহমের আত্নার মাগফেরাত কামনা করছি।
বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী মোহাম্মদ নাসিম ১৯৪৮ সালের ২ এপ্রিল সিরাজগঞ্জ জেলার কাজিপুর উপজেলায় জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহিদ ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী ও মা মোসাম্মাত্ আমেনা মনসুরের ঘরে জন্মগ্রহণ করেন।
রাজনৈতিক পরিবারে জন্ম ও বেড়ে ওঠা। শৈশব থেকেই পার করেছেন নানা চড়াই-উতরাই। রাজনীতির হাতেখড়িটাও শৈশবেই। একসময় নিজেও নেমেছেন সক্রিয় রাজনীতিতে। ছাত্রলীগ, যুবলীগ হয়ে আওয়ামী লীগ। দেশের রাজনীতির দীর্ঘ অধ্যায়জুড়ে ছিলেন মোহাম্মদ নাসিম।মোহাম্মদ নাসিম জগন্নাথ কলেজ (বর্তমান জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়) থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। ষাটের দশকে ছাত্র আন্দোলনের সক্রিয় নেতা মোহাম্মদ নাসিম স্বাধীনতার পর ১৯৭৩ সালে বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হন।
বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর দীর্ঘ ২১টি বছর সামরিক ও খালেদা জিয়া বিরোধী আন্দোলনে রাজপথের সাহসী যোদ্ধা ছিলেন মোহাম্মদ নাসিম। তিনি
১৯৮৬ সালে প্রথম সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন মোহাম্মদ নাসিম। ১৯৯১ সালের সংসদে বিরোধী দলের প্রধান হুইপ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। এরপর ,১৯৯৬, ২০০১, ২০১৪ ও ২০১৮ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন মোহাম্মদ নাসিম। ১৯৯৬ সালে প্রথম আওয়ামী লীগ সরকার দায়িত্ব গ্রহণের সময়ে মোহাম্মদ নাসিমকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরের বছরের মার্চে তাঁকে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়েরও দায়িত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী। একইসঙ্গে, দুই গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্ব পালনের পর ১৯৯৯ সালে মন্ত্রিসভায় রদবদলে মোহাম্মদ নাসিম স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পান।সবশেষে তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন।
গত ২০২০ সালে  করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর স্ট্রোকে মোহাম্মদ নাসিমের জীবন সংকটাপন্ন হয়ে উঠেছিল, সেই সংকট আর কাটেনি। দীর্ঘ ১০ দিন ধরে হাসপাতালে  জীবন-মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে ২০২০ সালের ১৩ জুন মারা যান রাজনীতির এই উজ্জ্বল নক্ষত্র।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
Theme Created By Limon Kabir