রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ১১:২৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
আম নিয়ে কষ্টগাঁথা কাজিপুরে বসুন্ধরা শুভসংঘের উদ্যোগে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান বন্ধ থাকা সেফটিক ট্যাঙ্কে নেমে প্রাণ হারালো কুষ্টিয়ার দুই যুবক সামাজিক অপরাধ প্রতিরোধে মসজিদে ওসি’র জনসচেতনতা মূলক বক্তব্য কামারখন্দে কোনাবাড়ীতে উৎসবমুখর পরিবেশে কবরস্থানে বাউন্ডারি ওয়াল নির্মাণ কাজ উদ্বোধন সিরাজগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির চরম অবনতি উল্লাপাড়ায় ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে গাছের চারা বিতারন বিতর্কিত সেই পিআইও মাহাবুব বদলি হয়ে উল্লাপাড়া আসার পাঁয়তারা কোটা আন্দোলন:আজ থেকে সড়ক বন্ধ করে বিশৃঙ্খলা করলে কঠোর ব্যবস্থা:মহিদ কেরালায় হারানো আইফোন কামরাঙ্গীরচর থেকে উদ্ধার, দুই ভাই গ্রেফতার

‘ন্যায়কুঞ্জ’ স্থাপনে বিচারপ্রার্থী মানুষের কষ্ট লাঘব হবে : প্রধান বিচারপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক: / ৬৮ বার দেখা হয়েছে
আপডেট করা হয়েছে


বিচারপ্রার্থীদের বিশ্রামের জন্য ‘ন্যায়কুঞ্জ’ উদ্বোধন করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালত চত্ত্বরে প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান বিচারপ্রার্থীদের জন্য বিশ্রামাগার ‘ন্যায়কুঞ্জ’ উদ্বোধন করেন। এরপর ন্যায়কুঞ্জ পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের উদ্দ্যেশ্যে প্রধান বিচারপতি বলেন, আদালতে বিচারপ্রার্থীদের আধুনিক নাগরিক সুবিধা সম্বলিত নিরাপদ অবস্থান নিশ্চিতের লক্ষ্যে প্রত্যেক জেলায় আদালত ভবনের সাথে ‘ন্যায়কুঞ্জ’ নির্মানের উদ্যোগ নেয় সরকার।

তিনি বলেন, আদালত প্রাঙ্গনে বিচারপ্রার্থী যারা আসেন তাদের বসার কোনো স্থান নেই, সুপেয় পানির কোনো ব্যবস্থা নেই, মায়েদের জন্য শৌচাগার নেই, তখন বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্যোগ গ্রহন করে সারা বাংলাদেশে ‘ন্যায়কুঞ্জ’ স্থাপন করার পরিকল্পনা গ্রহন করেন। ‘ন্যায়কুঞ্জের’ ভেতরে মায়েরা চাইলে শিশুদের দুগ্ধপান করাতে পারবেন। বিচারপ্রার্থী যারা আদালতে আসেন তারা বাধ্য হয়েই এখানে আসেন, তাদের বসার জন্য এটি স্থাপন করা হয়েছে। এই স্থাপনা তৈরীর মধ্য দিয়ে বিচারপ্রার্থী মানুষের কষ্ট লাঘব হবে। এই স্থাপনা তৈরীর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিচার বিভাগের পক্ষ থেকে ধনাবাদ জানান প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান।
ন্যায়কুঞ্জ উদ্বোধনের সময় হাইকোর্ট বিভাগের রেজিষ্ট্রার মুন্সি মো. মশিয়ার রহমান, সিরাজগঞ্জ বিজ্ঞ সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ এম. আলী আহমেদ, আপীল বিভাগের রেজিষ্ট্রার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক মীর মো. মাহবুবুর রহমান, জেলা পুলিশ সুপার আরিফুর রহমান মন্ডল সহ বিভিন্ন পদমর্যাদার বিচারকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০২৩ সালের ০৯ জুন হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি নাইমা হায়দার ন্যায়কুঞ্জের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। ১০০০ বর্গফুট আয়তনের এই ভবনে বিচারপ্রার্থীদের বসার ব্যবস্থাসহ ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার, পুরুষ মহিলাদের জন্য আলাদা টয়লেট, মুদীখানা দোকানের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এই প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় হয়েছে ৫২ লক্ষ ৩৪ হাজার টাকা।



আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
Theme Created By Limon Kabir