শুক্রবার , অক্টোবর ১৮ ২০১৯
Breaking News
Home / খেলাখুলা / বেকায়দায় হকি ফেডারেশন, ক্যাসিনো সাঈদ কোথায়?

বেকায়দায় হকি ফেডারেশন, ক্যাসিনো সাঈদ কোথায়?

খেলাধুলা ডেস্ক:
কয়েক মাস আগে বাঁচাও হকি স্লোগান দিয়ে ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়া মমিনুল হক সাঈদ এখন নিজেকে বাঁচাতেই ব্যস্ত। ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে সাঈদ আছেন আত্মগোপনে। তবে হকি ফেডারেশনের সাবেক জয়েন সেক্রেটারি মাহবুবুল হক রানা বলছেন এই লজ্জা পুরো হকি পরিবারের।

১৩ বছরের বিরতিতে গেল এপ্রিল মাসে অনুষ্ঠিত হয় হকি ফেডারেশন নির্বাচন। আব্দুস সাদেককে হারিয়ে হকির সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর ও আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের সভাপতি মমিনুল হক সাঈদ। ভঙ্গুর হকিকে ফিরিয়ে আনতে বাঁচাও হকি স্লোগান ব্যবহার করেই জয় লাভ করেন এই যুবলীগ নেতা।

হকি নিয়ে বিভিন্ন কার্যক্রম শুরু করলেও ক্যাসিনো কাণ্ডে গা-ঢাকা দিয়েছেন সাঈদ। গুঞ্জন চলছে তিনি আছেন সিঙ্গাপুরে। তবে তার ক্লাব আরামবাগ হয়েছে সিলগালা। তিনি জড়িত আছেন মোহামেডান ক্লাবের সাথেও। প্রশ্ন উঠছে যে সাঈদ হকিকে বাঁচানোর স্লোগান নিয়ে ফেডারেশনের সবচেয়ে বড় পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি নিজেই আইন বিরোধী কাজের জন্য আত্মগোপনে গেলেন। তার মাধ্যমে কি ক্রীড়াঙ্গন উপকৃত হতে পারে?

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আহসান রানা বলেন, ন্যাশনাল টিম নিয়ে কোন প্ল্যান নেই, ঘরোয়া লিগ নিয়ে কোন প্ল্যান নেই, আজকে দেড় বছরের উপরে হয়ে গেছে দলবদল নেই। প্লেয়ারদের যে প্রধান ইনকাম সেই রাস্তা বন্ধ। আর আমাদের যে মূল ভিশন সেখানে তাদের কোন প্ল্যান দেখতেছি না। আমরা যারা এক্স খেলোয়ার বলেন, সংগঠক বলেন, আমরা যারা হকির সাথে রিলেটেড তারা বিব্রত বলব, আবার মর্মাহত বলব। এই ধরনের কর্মকাণ্ড যারা জড়িত তারা স্পোর্টসকে কতটুকু এগিয়ে নিবে? বরং এগিয়ে নেওয়ার চাইতে তারা আর কলুষিত করল। এ কথাটাই তো আপত্তিকর বাঁচাও হকি। হকি কি মরে গেছিল নাকি।

রানার কথায় একদম স্পষ্ট, ক্রীড়াঙ্গনকে ব্যবহার করে ফায়দা লোটা মানুষগুলো কখনোই খেলাধূলার ভালো চায় না।

About admin

Check Also

আগামী প্রজন্মকে পরিচ্ছন্ন হয়ে ওঠার আহ্বান স্থানীয় সরকারমন্ত্রীর

অনলাইন ডেস্ক: আগামী প্রজন্মকে শারীরিক ও মানসিক দিক থেকে পরিচ্ছন্ন নাগরিক হিসেবে গড়ে ওঠার আহ্বান …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *